হৃদরোগে আক্রান্ত ট্রিপল এইচ, এখন শঙ্কামুক্ত

0
32

এখন আর রেসলিং রিংয়ে নিয়মিত দেখা যায় না তাঁকে। নিজে রেসল করার চেয়ে আগামী দিনের প্রতিভা গড়ে তোলার দিকেই তাঁর এখন যত মনোযোগ।

ডব্লুডব্লুই-র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও বৈশ্বিক প্রতিভা অন্বেষণ বিষয়ক নির্বাহী সহসভাপতির দায়িত্বে আছেন তিনি। ডব্লুডব্লুই-র প্রধান দুই ব্র্যান্ড ‘র’ ও ‘স্ম্যাকডাউন’-এর পাশাপাশি আরেকটা ব্র্যান্ড আছে – ‘এনএক্সটি’। যে ব্র্যান্ডে নিয়মিত আগামী দিনের তারকা গড়ে তুলে পর্যায়ক্রমে র কিংবা স্ম্যাকডাউনে পাঠানো হয়। সেই এনএক্সটির দায়িত্বেই এত দিন ছিলেন তিনি।

বলা হচ্ছিল পল মাইকেল লেভেস্কের কথা, রেসলিং জগতে ভক্তদের কাছে যিনি ‘ট্রিপল এইচ’ বা ‘হান্টার হার্স্ট হেলমস্লি’ নামেই বেশি পরিচিত।

কিছুদিন আগে জানা গেল, এনএক্সটি-কে আবার নতুন আঙ্গিকে সাজানো হচ্ছে। র ও স্ম্যাকডাউনের পাশাপাশি এই ব্র্যান্ডের দেখাশোনাও এখন থেকে করবেন ডব্লুডব্লুই প্রধান ভিন্স ম্যাকম্যাহন। ট্রিপল এইচকে কেন এনএক্সটির দায়িত্ব থেকে আপাতত সরানো হচ্ছে, এটা নিয়ে রেসলিং ভক্তদের মনে ক্ষোভ ছিল অনেক। সেটার একটা ব্যাখ্যা পাওয়া গেল গতকাল।

ডব্লুডব্লুই-র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও বৈশ্বিক প্রতিভা অন্বেষণ বিষয়ক নির্বাহী সহসভাপতি তিনি
ডব্লুডব্লুই-র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও বৈশ্বিক প্রতিভা অন্বেষণ বিষয়ক নির্বাহী সহসভাপতি তিনি
সম্প্রতি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন ট্রিপল এইচ। যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাটের নিউ ইয়েল হেভেন হাসপাতালে গত সপ্তাহে তাঁর চিকিৎসাও হয়েছে। খবরটা এত দিন লুকানো থাকলেও গতরাতে আনুষ্ঠানিকভাবেই ব্যাপারটা জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড রেসলিং এন্টারটেইনমেন্ট। জানিয়েছে, ভয়ের কিছু নেই। এখন শঙ্কামুক্ত তিনি।

আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে ডব্লুডব্লুই জানিয়েছে, ‘সম্প্রতি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন পল লেভেস্ক (ট্রিপল এইচ), গত সপ্তাহে ইয়েল নিউ হেভেন হাসপাতালে পল লেভেস্ক তাঁর সফল চিকিৎসা হয়েছে। খুব শিগগিরই পল পুরোপুরি সুস্থ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।’

১৪ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ট্রিপল এইচ
১৪ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ট্রিপল এইচ
তবে হৃদরোগ ও চিকিৎসার ধরণ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে কিছুই জানায়নি ডব্লুডব্লুই।
১৪ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ট্রিপল এইচ। জিতেছেন ইন্টারকন্টিনেন্টাল, ট্যাগ টিম ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপও।

তিনি সেই বিশেষ সাত রেসলারের মধ্যে একজন যারা একাধিকবার রয়াল রাম্বল ম্যাচ জিতেছেন। বাকি ছয়জন – রিক ফ্লেয়ার, শন মাইকেলস, স্টিভ অস্টিন, জন সিনা, র‍্যান্ডি অরটন ও বাতিস্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here