শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু : অভিভূত গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের প্রতিনিধিরা

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার নিভৃত পল্লী বালেন্দা গ্রামের ফসলি মাঠে শত বিঘা জমির গাঢ় বেগুনী ও সবুজ ক্যানভাসে ফুটিয়ে তোলা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি দেখে অভিভূত গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের বাংলাদেশ প্রতিনিধিরা।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুরে শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি দেখতে সরেজমিন পরিদর্শন আসেন সংস্থাটির দুই সদস্য। এরা হলেন- শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য (ভিসি) প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন আহম্মদ ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. এমদাদুল হক চৌধুরী।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে জাতীয় পরিষদের উদ্যোগে এবং বেসরকারি কোম্পানি ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের সহযোগিতায় ‘শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর’ প্রতিকৃতি তৈরিতে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের সব শর্তই পূরণ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন আহম্মদ।

তিনি বলেন, ‘দুই জাতের ধানের চারায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে। তাই আগামী তিনদিনের মধ্যে লন্ডনস্থ গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন পাঠানো হবে। আর সাতদিনের মধ্যেই ফলাফল জানা যাবে।’

প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন জানান, ২০১৯ সালে চিনে তৈরি শস্যচিত্রটির আয়তন ছিল ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৬ বর্গফুট। আর শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির আয়তন ১২ লাখ ৯২ হাজার বর্গফুট, দৈর্ঘ্য ৪০০ মিটার এবং প্রস্থ ৩০০ মিটার। যা হবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ শস্যচিত্র। এছাড়া শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি তৈরির জন্য দুই ধরনের ধানের চারা লাগানো হয়েছে। যার মাধ্যমে জাতির জনকের সুস্পষ্ট অবয়ব ফুটে উঠেছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, শস্যচিত্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু জাতীয় পরিষদের সভাপতি ও বাংলাদেশ কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সমীর চন্দ্র, সদস্য সচিব কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, স্থানীয় সংসদ সদস্য হাবিবর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুর রহমান দুলু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাকসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয়, জেলা-উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here