করোনা ভাইরাস আতঙ্ক: কোয়ারেন্টাইনে রোনালদো

করোনার ভয়াবহ থাবা পড়েছে ক্রীড়াঙ্গনেও। মৃত্যুপুরীতে পরিণত হওয়া ইতালিতে সব ধরণের ঘরোয়া লিগের খেলা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এরিমধ্যে। আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে দেশটির ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর সিরি আ। আগামী ১৮ মার্চ মাঠে নামার কথা ছিলো পর্তুগিজ ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দল য়্যুভেন্তাসের।

সে ম্যাচের জন্যই প্রস্তুতি চলছিলো। তার আগেই এক দুঃসংবাদ পেলো ক্লাবটি। দলের ইতালিয়ান ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল রুগানি আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে। ক্লাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হয়েছে খবরটি।

ফলে এখন থেকে য়্যুভেন্তাসের অধীনেই ২৫ বছর বয়সী এ ডিফেন্ডারের পরবর্তী চিকিৎসা করা হবে। এছাড়া গত কয়েকদিনে রুগানির সংস্পর্শে আসা সকলকে পরীক্ষা করার কথাও জানিয়েছে ইতালিয়ান ক্লাবটি।

এদিকে খেলা স্থগিতের ঘোষণার পর নিজ দেশ পর্তুগালে চলে গেছেন রোনালদো। কিন্তু দুঃসংবাদ পিছু ছাড়ছেন তার। সতীর্থ ড্যানিয়েল রুগানি করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর তার সঙ্গে মেলামেশা করা সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। তার মধ্যে আছেন রোনালদোও।  ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলিমেইলের খবরে বলা হয়েছে, যেহেতু  রুগানির  সঙ্গে একই দলে খেলেছেন রোনালদো, ঝুঁকি তো থেকেই যায়। তাই দেশে ফেরার পর মাদেইরাতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে রোনালদোকেও।

কদিন আগে হঠাৎ স্ট্রোক করেন রোনালদোর মা মারিয়া সান্তোস এভেইরো। তিনি আবার ক্যানসারেও আক্রান্ত। মূলত অসুস্থ মাকে দেখতেই দেশে ফিরে গেছেন রোনালদো। তখনও তিনি জানতেন না সতীর্থের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর।

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই গত রোববার সিরিআতে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে জুভেন্টাসের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ম্যাচে ২-০ গোলে জয় পায় হারায় জুভরা। খেলা মাঠে গড়ালেও অবশ্য দর্শক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা ছিল। ‘ক্লোজ ডোর’ হয়েছে ম্যাচটি।

ওই ম্যাচের পর ইনস্টাগ্রামে এক ছবিতে দেখা যায়, রোনালদো তার সতীর্থ রুগানির সঙ্গে জয় উদযাপন করছেন। তারা একসঙ্গে ড্রেসিংরুমে অনেকটা সময় ছিলেন। তাই করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি আছে রোনালদোরও।

ইতালিতে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া প্রথম বড় তারকা ফুটবলার হলেন ড্যানিয়েল রুগানি। তবে তার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত হলেও, য়্যুভেন্তাস জানিয়েছে রুগানির শরীরে বর্তমানে অসম্পূর্ণ অবস্থায় রয়েছে করোনার উপসর্গগুলো। ফলে তার দ্রুত সুস্থতার আশা করছে ক্লাবটি।

রুগানির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরের প্রতিক্রিয়া এখনও ঠিক পরিষ্কার নয় ইতালির সংবাদমাধ্যমগুলোর কাছে। তবে ফুটবল ইতালিয়ার খবর, যেহেতু রুগানির শেষ ম্যাচ ছিলো ইন্টার মিলানের বিপক্ষে তাই য়্যুভেন্তাস ও ইন্টার- উভয় দলকেই এখন রাখা হয়েছে হোম কোয়ারেন্টাইনে।

আর এমন খবর পাওয়ার পর নড়েচড়ে বসেছে উয়েফাও। আগামী ১৮ মার্চ য়্যুভেন্তাসের ঘরের মাঠ তুরিনে লিওনের বিপক্ষে যে ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিলো, সেটি স্থগিত করার কথা ভাবছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি।

ইতালিতে করোনা পরিস্থিতি এখন রীতিমত ভয়াবহ। এখন পর্যন্ত ৮২৭ জন মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সব প্রদেশে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here