এক ঘণ্টা পর জানলেন তিনি নিজেও আক্রান্ত

করোনার ভয়াবহতায় শ্রমজীবী মানুষগুলো আজ অসহায়। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে সেসব অসহায় মানুষের খাদ্য সংকট দূর করতে এক তরুণ জনপ্রতিনিধি বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। অব্যাহত রয়েছে তার কার্যক্রম। রবিবার (১৭ মে) তিনি ১৮ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর খোঁজ নিয়েছেন। ব্যক্তিটি হলেন রায়পুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এ বি এম মারুফ বিন জাকারিয়া।

সারা দিনের কর্মব্যস্ততা ও জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব পালন করে মারুফ তার ফেসবুকে রবিবার রাত ৯টা ৫৪ মিনিটে করোনা রোগীদের সুস্থতা চেয়ে স্ট্যাটাস দেন। এর এক ঘণ্টা পর ১১টার দিকে তিনি জানতে পারেন নিজের দেওয়া নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ এসেছে। যিনি অন্যদের সাহস হয়ে কাজ করেছেন, তিনিই আজ করোনায় আক্রান্ত। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তত্ত্বাবধানে তাকে চিকিৎসার আওতায় আনা হয়েছে।

তার স্ট্যাটাসটি হলো, ‘আজ ১৮ জন করোনা রোগীর সঙ্গে কথা বলেছি। বিশ্বাস করেন, তাদের সামনে গিয়ে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে কথা না বললে আপনি বুঝতে পারবেন না তাদের মানসিক অবস্থা। আশেপাশের মানুষগুলো আমরা এমন অবস্থা সৃষ্টি করি, মনে হয় করোনা পজিটিভ রোগীগুলো কোনো হিংস্র প্রাণী। তাদের অনুরোধ, আমি যেন তাদের পাশে থাকি। সবাইকে বলে এসেছি, তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসের তালিকা করতে। কাল সকালে আমি তালিকা এনে ক্রয় করে সেই মোতাবেক পৌঁছে দেব। ইয়াং ব্লাড এতো ভয় পাই না। যতটুকু সচেতনতা অবলম্বন করা দরকার তা করি। সবাই দোয়া করবেন এই রোগীগুলো যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, লক্ষ্মীপুরের ৮১টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রায়পুরে ৮ জন ও সদর উপজেলায় ১ জন রোগী। রায়পুরের ৪ জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক, দুজন নার্স, একজন জনপ্রতিনিধি রয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তত্ত্বাবধানে আক্রান্তদের চিকিৎসার আওতায় আনা হয়েছে। এনিয়ে এ জেলায় ৯৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, খাদ্য সহায়তা করতে গিয়ে লক্ষ্মীপুর সদর আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শাহজাহান কামালের এপিএস বায়েজীদ ভূঁইয়া ও কমলনগরের শিক্ষানবিশ আইনজীবী ফখরুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here